23 C
New York
Monday, July 26, 2021

নবজাতকটি কাঁদছিল ধানক্ষেতে, অতঃপর

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ধানক্ষেত থেকে এক নবজাতককে (ছেলে) উদ্ধার করেছে পুলিশ। বর্তমানে নবজাতকটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে উপজেলার চাঁদখানা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাঁদখানা দহবন গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। শিশুটি এখন সুস্থ আছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দহবন গ্রামের কৃষক বিষাদু মোহন্ত বেলা তিনটার দিকে ধানক্ষেতে ধান কাটার সময় সেখানে হঠাৎ করে শিশুর কান্না শুনতে পান। কাছে গিয়ে দেখেন নবজাতক কাপড়ে মোড়ানো অবস্থায় পড়ে আছে।

সাথে সাথে তিনি নবজাতকের পড়ে থাকার বিষয়টি তার স্ত্রীকে জানান। তার স্ত্রী রাধা রানী মোহন্ত দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নবজাতকটিকে কোলে তুলে নেন। নবজাতককে সাথে নিয়ে স্বামী সহ বাড়িতে এসে পুলিশে খবর দেন।।

কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে নবজাতককে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। বর্তমানে নবজাতকের সঙ্গে কৃষকের স্ত্রী রাধা রানী মোহন্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবস্থান করছেন।

রাধা রানী মোহন্ত বলেন, ‘আমার সাড়ে তিন মাস বয়সী একটি মেয়ে সন্তান আছে। কুড়িয়ে পাওয়া নবজাতককে আমি দুধ পান করাচ্ছি। পুলিশের কাছে অনুরোধ করেছি শিশুটিকে যেন আমাকে দেওয়া হয়। তাকে আমি আমার নিজের সন্তান হিসেবে লালন পালন করবো।’

কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মাসুদ রানা বলেন, ‘বৃহস্পতিবার বিকেলে একদিনের ওই শিশুটিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছিল।

তার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে, কোনো সমস্যা নেই। শুক্রবার দুপুর ২টা পর্যন্ত শিশুটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আছে। রাধা রানী নামে একজন নারী তাকে মায়ের মমতায় আগলে রেখেছেন।’

কিশোরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল বলেন, ‘নবজাতকটির বাবা-মায়ের খোঁজ করা হচ্ছে, এখনও সন্ধান পাওয়া যায়নি। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন মহিলা পুলিশের পাহারায় শিশুটি আছে। নবজাতককে কেউ দত্তক নিতে চাইলে আমরা দিতে পারি না। তাকে আদালতের মাধ্যমে নিতে হবে।’

Related Articles

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Stay Connected

21,984ভক্তমত
2,870অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
0গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

Latest Articles